Wednesday, June 23, 2021
Home Kolkata news কেন্দ্রীয় নেতাদের দূরে রাখতে পার্টি অফিস ভাগ করে ফেলল রাজ্য বিজেপি

কেন্দ্রীয় নেতাদের দূরে রাখতে পার্টি অফিস ভাগ করে ফেলল রাজ্য বিজেপি


ভোটের ফল আশানুরুপ হয়নি। আর সেজন্য দলের কেন্দ্রীয় নেতাদেরই কাঠগড়ায় তুলেছে রাজ্য বিজেপি। দিলীপ ঘোষের সঙ্গে এক সুরে কেন্দ্রীয় আধিপত্য থেকে মুক্তির দাবি তুলেছে তারা। আর এবার দিল্লির নেতাদের থেকে দূরে থাকতে কার্যালয়ই আলাদা করে ফেলতে চলেছেন তাঁরা। দলের তরফে খবর, ভোট মিটলেও দলের হেস্টিংসের নির্বাচনী কার্যালয় ছাড়ছে না বিজেপি। রাজ্যে এলে সেখানেই বসবেন দলের কেন্দ্রীয় নেতারা। আর মুরলিধর সেন স্ট্রিটে পুরনো ঘাঁটিতে ফিরবেন দিলীপ, রাহুল সিনহা, শমীক ভট্টাচার্য, সায়ন্তন বসুরা। 

বিধানসভা নির্বাচনে ২০০ আসনের লক্ষ্যে এগিয়ে ৭৭-এই থমকে গিয়েছে বিজেপি। আর সেজন্য দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের কাঠগড়ায় তুলেছে বিজেপির রাজ্য নেতারা। জেলায় জেলায় ব্লকে ব্লকে কেন্দ্রীয় নেতাদের নাক গলানোর কী দরকার ছিল প্রশ্ন তুলছেন তাঁরা। বিজেপির রাজ্য নেতৃত্বের দাবি, এই হস্তক্ষেপেই দলের বিরুদ্ধে তৃণমূলের চাউর করা বহিরাগত তত্ত্ব গ্রহণ করেছে রাজ্যের মানুষ। অচেনা নেতাদের দেখে মোদী – অমিত শাহকেও আপন করে নিতে পারেনি তারা। বরং তাদের কাছে আপন মনে হয়েছে দুর্নীতিগ্রস্ত তৃণমূল। 

দলের রাজ্য নেতাদের একাংশের মতে, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, অরবিন্দ মেনন, শিবপ্রকাশ, অমিত মালব্যর মতো নেতাদের মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গকে বোঝার চেষ্টা করেছেন মোদী – শাহ। যারা নিজেরাই ভাল করে বাংলাকে চেনেন না তাদের মাধ্যমে বাংলাকে চিনতে গিয়েই কেলেঙ্কারি হয়েছে। আর তার পর থেকে বিজেপি রাজ্য নেতারা কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের থেকে দূরে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সেজন্যই ভাগ হতে চলেছে পার্টি অফিস। 

বিধানসভা ভোটে লক্ষ্যপূরণ না হলেও বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকরা স্বপদে বহাল রয়েছেন। আপাতত তাঁরা রাজ্য থেকে দূরে থাকলেও কয়েকদিনের মধ্যে ফিরবেন কলকাতায়। তখন তাঁদের বসার ব্যবস্থা থাকবে হেস্টিং পার্টি অফিসে। আর বিজেপির রাজ্যের নেতারা বসবেন মুরলিধর সেন স্ট্রিটে। 

রাজ্য বিজেপির এক নেতার কথায়, ভোটের আগে বারবার অতিরিক্ত কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপ নিয়ে আপত্তি জানালেও কর্ণপাত করেননি কৈলাস, অরবিন্দ মেননরা। সমস্ত বিষয়ে হস্তক্ষেপ করেছেন তাঁরা। যার ফলে এরাজ্যের বিজেপি নেতাদের ওপরেও বহিরাগত তকমা লেগেছে। যা মানতে পারছেন না রাজ্য নেতৃত্বের অনেকেই।

 

Source link

RELATED ARTICLES

'পরিষদীয় কাজে হস্তক্ষেপ রাজ্যপালের', ওম বিড়লাকে নালিশ বিধানসভার অধ্যক্ষের

সমস্ত রাজ্যের বিধানসভার অধ্যক্ষদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক লোকসভার স্পিকারের। Source link

এবার বেসুরো রিঙ্কু নস্কর, শহরের বুকে পদ্মফুলে কাঁটা, তুললেন একরাশ অভিযোগ

একুশের নির্বাচনে বিধায়ক হবেন বলে দলবদল করেছিলেন। তবে তিনি সিপিআইএম থেকে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। বিপুল ভোটে তিনি পরাজিত হয়েছেন। এখন ঘরে বসে সময়...

জোড়া ঘুর্ণাবর্ত ও মৌসুমী অক্ষরেখার জের, নাগাড়ে বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস

অবিরাম বৃষ্টি পড়েই চলেছে রাজ্যেজুড়ে। এতে শুধু শহরেই জলমগ্ন হয়নি, গ্রামগঞ্জেও জলে থৈ থৈ অবস্থা। এই পরিস্থিতি থেকে এখনই রেহাই মিলছে না আম...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তে ভুয়ো এনকাউন্টারের দাবি খারিজ, গুলিতেই মৃত্যু গ্যাংস্টারের

দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের পরেও এটাই সামনে আসছে যে, গুলিতেই মৃত্যু হয়েছিল পঞ্জাবের গ্যাংস্টার জয়পাল সিং ভুল্লারের। পঞ্জাব- হরিয়ানা আদালতের নির্দেশে মঙ্গলবার দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্ত হয়...

WTC Final: ২ বছর আগেও সাউদাম্পটনে পেয়েছিলেন বড় সাফল্য, মনে করালেন শামি

সাউদাম্পটন তাঁর কাছে খুবই লাকি। যখনই এই মাঠে বল করতে নামেন, তখনই পারফরমেন্স ভাল হয় মহম্মদ শামির। এই সাউদাম্পটনে প্রচুর ইতিহাস রয়েছে তাঁর।...

'পরিষদীয় কাজে হস্তক্ষেপ রাজ্যপালের', ওম বিড়লাকে নালিশ বিধানসভার অধ্যক্ষের

সমস্ত রাজ্যের বিধানসভার অধ্যক্ষদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক লোকসভার স্পিকারের। Source link

‘‌এখন অরবিন্দ মেনন, কৈলাস বিজয়বর্গীয় কোথায়?’‌, ফের তোপ দাগলেন তথাগত

নগরের নটি থেকে কেডিএসএ—এমন সব মন্তব্য করে একুশের নির্বাচনের পর রাজ্য বিজেপির অস্বস্তি বাড়িয়ে ছিলেন তিনি। এবার সেই ধারা অব্যাহত রেখেছেন তিনি। নির্বাচন...

Recent Comments